গরমে পোশাকে আনুন পরিবর্তন

গরম আসছে, এবার শীত একটু প্রলম্বিত হলেও, এখন গরম পড়তে শুরু করেছে। ফলে এখনই পোশাকের ব্যাপারে সতর্ক হওয়া দরকার। গরমে পোশাক হওয়া চাই আরামদায়ক এবং কিছুটা ঢিলেঢালা। গরমকাল বলে আমাদের বাইরে ছোটাছুটি তো আর বন্ধ রাখার উপায় নেই। তাই ঘর্মাক্ত শরীর নিয়ে যাতে চলতে না হয় এজন্য সুতি পোশাক নির্বাচন করতে হবে, খেয়াল রাখতে হবে পোশাকগুলো যাতে খুব মোটা বা খুব পাতলা না হয়। খুব গাড়ো কালারের পোশাক গরমে আরামদায়ক হয় না। কালো পোশাক তাপ শোষণ করে বেশি এ কারণে গরমে কালো রঙের পোশাক অস্বস্তিকর। 

পোশাক নির্বাচনের ক্ষেত্রে স্থান-কাল মাথায় রাখতে হবে, মাথায় রাখতে হবে সময়। গরমে পারলে একই পোশাক সারাদিন পরে না থাকা ভালো। অফিশের ফাঁকে পোশাকটা একবার পাল্টিয়ে নিতে পারেন সম্ভব হলে। বাইরে গেলে একটু বেশি জামা কাপড় রাখবেন এই সময়ে। একবারের বেশি কোনোভাবেই অন্তর্বাস ব্যবহার করা উচিত নয়। উপরের পোশাকগুলোও একবারের বেশি না পরে পারলে ভালো। খুব সম্ভব না হলে অন্তত রোদে দিয়ে ঝরঝরা করে নিতে হবে।

আপনার শরীর যদি ঘামে, তাহলে ডিও দিয়ে ঘামের গন্ধ লুকানোর চেয়ে উত্তম হচ্ছে দিনে অন্তত দুইবার গোসল করা। এক্ষেত্রে সাবান নির্বাচনে সতর্ক হতে হবে।  

আরেকটি বিষয় খুব লক্ষ্যনীয়, গরমের পোশাক ক্রয়ের ক্ষেত্রে অবশ্যই শুধু সুতি কাপড় দেখেই কিনে ফেলবেন না, কাপড়ের টেকচারটা বোঝার চেষ্টা করবেন, কাপড় খুব খসখসে হলে সেটি আপনাকে অস্বস্তিতে ফেলবে। মোজা এবং আন্ডারওয়্যার একটু ভালো মানের কেনার চেষ্টা করবেন। 

বিশেষ করে শিশুদের পোশাকের ক্ষেত্রে খুব যত্নবান হতে হবে। আমরা খেয়ালই রাখি না যে শিশুদের পোশাক বড়দের চেয়েও ঘনঘন বদলানো প্রয়োজন। বাইরে বের হলে দেখা যায় শিশুদের খুব কটকটে রঙের পোশাক পরিয়ে বাবা মা বাইরে বের হয়েছেন। এটি খুবই ক্ষতিকর। তাছাড়া যে কাপড়গুলো শিশুদের পরানো হচ্ছে সেগুলো অবশ্যই মানসম্মত হওয়া চাই। 

গরমের পোশাক সম্পর্কে সচেতন হলে বেঁচে যাবেন অনেক ধরনের চর্মরোগ এবং রোগ জীবানুর আক্রমণ থেকে।


বিজ্ঞাপন: ক্লোজআপনিউজ.কম বললে এই দোকান থেকে বিশেষ ছাড়ে পোশাক কিনতে পারবেন। 

You may also like...