আমার গ্রাম মসনী: এখনো গ্রামের অনেকে বেঁচে আছে কোনোমতে …

সম্ভবত পঁচিশ বছর পর ওনার সাথে দেখা হলো। পঁচিশ বছরে শুধু যেন বয়স বেড়েছে। আর্থিক অবস্থা, দু:খ, কষ্ট -আর সবই একই অবস্থায় আছে। ছোটোবেলায় ঘরে খাবার মতো কিছু না থাকলে বাগান থেকে ঢেঁকি শাক কুড়িয়ে আনতাম।

ওনার হাতে ঢেঁকি শাক দেখে ছোটোবেলার কথা মনে পড়ে গেল। উনি বিক্রি করবেন কিনা জানতাম না। হয়ত বিক্রি করার জন্যিই বেরিয়েছিলেন। আমি শাকগুলো নিয়ে ওনাকে বিশ টাকা দিলাম। উনি হয়ত এই বিশ টাকা বেশি মনে করলেন, কিছুক্ষণ পরে আরো কিছু শাক তুলে এনে আমাকে দিলেন।

কতটা সরলতা, ন্যায্যতা রয়েছে গ্রামের খেটে খাওয়া এইসব মানুষের মধ্যে। অথচ দেশটাকে লুটেপুটে খাচ্ছে কিছু দুবৃত্ত। এদের জন্য ওরা কখনই ভাববে না। দুবৃত্ত কোনোদিন কাউকে নিয়ে ভাবে না। ভাবতে পারে না। 

You may also like...