“ভবিষ্যত বাংলাদেশ ভাবনা” বইয়ের প্রকাশনা উৎসব

২০১৫ সালে বইটি (ভবিষ্যত বাংলাদেশ ভাবনা) করার পরিকল্পনা আছে। দিব্যেন্দু দ্বীপের ব্রেন চাইল্ড ছিল বইটি। তিনি বিষয়ের ওপর দেশের বিদগ্ধ লোকদের লেখা প্রবন্ধ/নিবন্ধ অথবা সাক্ষাৎকার সংগ্রহ করে বইটি করতে চেয়েছিলেন।

বইটির কাজ তিনি দিকদর্শন এবং গ্রন্থকুটির প্রকাশনীর সত্ত্বাধিকারী রতন চন্দ্র পাল মহোদয়ের সাথে শুরুও করেছিলেন। অামাকে নিয়োজিত করে সাক্ষাৎকারের জন্য কয়েকজনের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছিল। তবে পরবর্তীতে প্রকাশনীর সাথে দিব্যেন্দু দ্বীপের কিছু ঝামেলা হওয়ায় বইটির কাজ আর এগোয়নি।

এরপর দিব্যেন্দু দ্বীপ সময় সময় বইটি সম্পর্কে খোঁজ নেয়ার চেষ্টা করলেও গ্রন্থকুটির প্রকাশনীর পক্ষ থেকে তেমন কোনো ইতিবাচক জবাব পাননি। উনি ভেবেছিলেন বইটি যেহেতু ওনার ভাবনা এবং মি. দিব্যেন্দু দ্বীপের প্রকাশনীর সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে না, তাই সঙ্গত কারণেই গ্রন্থকুটির বইটি আর করবে না।

কিন্তু তিন বছরের ব্যবধানে এসে দেখা গেল, গ্রন্থকুটির প্রকাশনী বইটি বের করেছেন, এবং বইটি শুধু বের করেছেনই না, খুব আড়ম্বর করে একটি প্রকাশনা উৎসবও করেছেন ইঞ্জিনিয়ার ইনস্টিটিউটে।

প্রকাশনা উৎসবে উপস্থিত ছিলেন, দেশের বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। বইটি এখনো হাতে পাওয়া যাইনি। হাতে পেলে জানা যাবে বিস্তারিত।

এ বিষয়ে দিব্যেন্দু দ্বীপ বলেন, “আইডিয়া চুরি হওয়া খুব ভয়ানক বিষয়, তাছাড়া এটা শুধু একটা আইডিয়া ছিল না, কাজটি আমি শুরু করেছিলাম আপনাদের নিয়ে, তাই বিষয়টি নিয়ে আমার দুঃখবোধ এবং অভিযোগ দুইই রয়েছে।”


শুভ্র মাহমুদ

You may also like...