গোপালগঞ্জ থেকে শুরু হয়েছে নিরাপদ খাদ্য আন্দোলন

জাতির পিতার পূণ্যভূমি গোপালগঞ্জ থেকে শুরু হয়েছে একটি আন্দোলন—নিরাপদ খাদ্য আন্দোলন। খাবার মানুষের মৌলিক চাহিদা, সেই খাবার নিয়ে যাচ্ছেতাইভাবে ব্যবসা চলতে পারে না। ‘খাদ্য নিরাপদ হতেই হবে’ এই স্লোগানটি সামনে রেখে দিব্যেন্দু দ্বীপ -এর নেতৃত্বে গোপালগঞ্জের সংগঠন ‘বিল্ড ফর নেশন’ থেকে শুরু হয়েছে একটি আন্দোলন। সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা দোকানে দোকানে গিয়ে খাবার পর্যবেক্ষণ করছেন, মালিকদের বুঝাচ্ছেন। জেলা প্রশাসন সহযোগিতা করায় কাজটি তারা সহজে করতে পারছেন। 

বিল্ড ফর নেশন

দিব্যেন্দু দ্বীপ -এর নেত্বত্বে পরিচালিত হচ্ছে একটি স্বেচ্ছাসেবী দল।

এ বিষয়ে সংগঠনের উদ্যোক্তা শরিফুল ইসলাম খান বলেন, “আমাদের উদ্দেশ্য মহৎ, আমরা চাচ্ছি খাবার নিয়ে যেন এরকম তুঘলকি কাণ্ড না চলে। যাচ্ছেতাই যেন মানুষকে না খেতে হয়। যতনদিন খাদ্য নিরাপদ না হবে ততদিন আমাদের এ আন্দোলন চলবে।”  

‘নিরাপদ খাদ্য আন্দোলন কর্মসূচীটির সূচনাকারী দিব্যেন্দু দ্বীপ বলেন, “শুধু আমাদের কয়েকজনের উদ্যোগে খাদ্য নিরাপদ হবে না, সাধারণ মানুষকে সচেতন হতে হবে। খাবারের ভালো মন্দ সম্পর্কে জানতে হবে। খোলা খাবার, অপরিচ্ছন্ন খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। মন্দ খাবার না খেলে, সেটি আর বিক্রি হবে না। সবচে বড় কথা আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে নিরপেক্ষ এবং দুর্নীতিমুক্ত থেকে ভেজাল খাদ্য নিরসনে কাজ করতে হবে। আমরা আন্দোলনের কাজটি করছি মানুষকে সচেতন করতে, যেখানেই অনিয়ম সেখানেই আমাদের সোচ্চার তে হবে। সরকার এক কখনো কিছু ভালো করতে পারবে না। জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে।” 

বশিমুরপ্রবি

গোপালগঞ্জ জেলার বেতগ্রাম বাসস্ট্রান্ডে অবস্থিত একটি রেস্টুরেন্ট মালিককে বুঝাচ্ছেন গোপালগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষক জাকিয়া সুলতানা মুক্তা, সাথে রয়েছেন একই বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন শিক্ষার্থী।

You may also like...