অনুষ্ঠিত হলো সুলভ স্মৃতি স্মারক বক্তৃতা এবং বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান

বাগেরহাট

স্বপ্নবাজ এক তরুণ ছিলেন শাহরিয়ার হাসান সুলভ। অকাল প্রয়াত এই সাবেক ছাত্রনেতা ও কার্টুনিস্টের দেখা স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখতে স্মরণসভায় উপস্থিত সুলভের পরিবারের সাথে কয়েকজন।

বাগেরহাটের সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা অকাল প্রয়াত শাহরিয়ার হাসান সুলভ স্মারক বক্তৃতা, বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়েছে আজ সকাল ১১টায় বাগেরহাট প্রেসক্লাব মীর জুলফিকার আলী লুলু মিলনায়তনে।

স্মরণসভায় আয়োজিত স্মারক বক্তৃতায় এবারের বক্তা ছিলেন কলামিস্ট ফারুক ওয়াসিফ। তিনি “কার চিন্তা কে করে দেয়” শীর্ষক বক্তৃতা রাখেন।

উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মোজাফফর হোসেন, বাগেরহাট সরকারি পিসি কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক চৌধুরী আব্দুর রব, সাংবাদিক বাবুল সরদার প্রমুখ। সিপিবি-বাগেরহাট এবং সুলভ স্বপ্ন সংসদের সভাপতি সভাপতি ফররুখ হাসান জুয়েল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

অনুষ্ঠান শেষে সুলভ স্বপ্ন সংসদের পক্ষ থেকে ঢাকা মেডিকেল (তরিকুল), স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল (শায়লা) ও খুলনা মেডিকেল (সাকিল) কলেজে অধ্যায়নরত তিনজন দরিদ্র মেধাবী ছাত্রের পরিবারকে শিক্ষাবৃত্তির অর্থ তুলে দেওয়া হয়। বৃত্তি তুলে দেন সুলভের মা শাহানারা বেগম।


শাহরিয়ার হাসান সুলভের জন্ম ১৯৭৮ সালের ২০ মার্চ। সৃষ্টিশীল মনের অধিকারি সুলভ ইংরেজি সাহিত্যে গ্রাজুয়েশন শেষ করে এমবিএ করেন। ২০০১ সালে এ্যানিমেটর ও স্ক্রিপ্টরাইটার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। কাজ করেছেন ইউনিসেফের ‘মীনা কার্টুন’ প্রকল্পে। ‘সেজদা’ নামে কার্টুন এঁকেছেন দেশের বিভিন্ন পত্রিকার জন্য।

তার আগ্রহ ছিল চলচ্চিত্রে। তৈরি করেছিলেন দুটি স্বল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্র। বহুমাত্রিক সুলভের সবশেষ কর্মস্থল ছিল বেসরকারি প্রতিষ্ঠান কাজী ফার্মসে। ডিজিটাল মাধ্যমে ব্যবহার করে এঁকেছেন অসংখ্য ছবি ও এনিমেশন। 

সুলভ স্বপ্ন সংসদের সভাপতি ফররুখ হাসান জুয়েল বলেন, ২০১৭ সালের ২০ মে আমাদের সকলকে রেখে না ফেরার দেশে চলে যান সুলভ। অকাল প্রয়াত মেধাবী তরুণ সুলভের দেখা স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখতে তার পরিবার ও কাছের বন্ধুদের নিয়ে এই সংসদ যাত্রা শুরু করল।

সুলভ স্বপ্ন সংসদ নামে আত্মপ্রকাশ করা এই সংগঠন বিভিন্ন সামাজিক কর্মকানণ্ড, ভালো কাজে অনুপ্রেরণা ও দরিদ্র মেধাবীদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গত বছরের ন্যায় এবারও তারা বৃত্তি প্রদান করলো।

You may also like...