ভারতে প্রথম বাংলা নামের ব্যাংক, প্রতিষ্ঠাতা একজন বাংলাদেশী

ভারতের ২৭ টি রাজ্যে ৫০১টি শাখা ও ২৫০টি এটিএম উদ্বোধনের মাধ্যমে জুন ২০১৫ সালে শুরু হয় ব্যাংকটির অভিযাত্রা।

এই ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক হলেন চন্দ্রশেখর ঘোষ, তিনি একজন বাঙালি ব্যাংকার; তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৮৪ সালে পরিসংখ্যান বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেওয়ার পর বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) ব্র্যাকে এক যুগ কাজ করেন।

১৯৯৭ সালে তিনি বাংলাদেশ ছেড়ে কলকাতায় চলে আসেন। তার পিতা ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে বাংলাদেশ ছেড়ে ভারতে চলে গিয়েছিলেন।
চন্দ্রশেখর ঘোষ কলকাতায় প্রথমে পারিবারিক ব্যবসায় সম্পৃক্ত হন।

এরপরে ২০০১ সালের নভেম্বরে দুই লাখ রুপি মূলধন নিয়ে গড়ে তোলেন ‘বন্ধন’ নামে একটি এনজিও। ২০০৯ সালে এই বন্ধনের নিবন্ধন হয় নন-ব্যাংকিং ফিন্যান্স কোম্পানি (এনবিএফসি) বা অ-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে।

আর ২০১৪ সালে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই) বন্ধনকে ব্যাংক হিসেবে লাইসেন্স দেয়। বন্ধন ব্যাংকই হলো ভারতে ব্যাংকিং কার্যক্রমের লাইসেন্স পাওয়া প্রথম এনবিএফসি।

You may also like...