Category: চিরায়ত সাহিত্য

কুসুমে কুসুমে 0

কুসুমে কুসুমে চরণচিহ্ন দিয়ে যাও // রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

কুসুমে কুসুমে চরণচিহ্ন   দিয়ে যাও, শেষে   দাও মুছে। ওহে   চঞ্চল, বেলা   না যেতে খেলা   কেন তব যায় ঘুচে॥ চকিত চোখের অশ্রুসজল   বেদনায় তুমি ছুঁয়ে ছুঁয়ে চল–           কোথা সে পথের শেষ   কোন্‌ সুদূরের দেশ                   ...

জীবনানন্দ দাশ 0

শকুন // জীবনানন্দ দাশ

মাঠ থেকে মাঠে-মাঠে—সমস্ত দুপুর ভ’রে এশিয়ার আকাশে-আকাশে শকুনেরা চরিতেছে; মানুষ দেখেছে হাট ঘাঁটি বস্তি; নিস্তব্ধ প্রান্তর শকুনের; যেখানে মাঠের দৃঢ় নীরবতা দাঁড়ায়েছে আকাশের পাশে আরেক আকাশ যেন—সেইখানে শকুনেরা একবার নামে পরস্পর কঠিন মেঘের থেকে;...

রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ 0

শিকল // রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ

ওই আঁটসাঁট ছোট জামাটা আমার গায়ে পরাবার চেষ্টা কোরো না। আমাকে থাকতে দাও ঢিলে-ঢোলা আমাকে খোলামেলা থাকতে দাও। সমুদ্র থেকে উঠে আসছে যে নদী পাখির মতো ডানা মেলে, আমাকে সে নদীর মতো থাকতে দাও...

মরণ রে, তুঁহু মম শ্যাম সমান' 0

ভানুসিংহ ঠাকুরের পদাবলী : “মরণরে, তুঁহুঁ মম শ্যাম সমান”

মরণরে, তুঁহুঁ মম শ্যাম সমান! মেঘ বরণ তুঝ, মেঘ জটাজুট, রক্ত কমল কর, রক্ত অধর-পুট, তাপ-বিমোচন কৰুণ কোর তব, মৃত্যু অমৃত করে দান! তুহু মম শ্যাম সমান। মরণরে, শ্যাম তোঁহারই নাম, চির বিসরল যব্‌,...

Seress Rezso 0

“পৃথিবী শেষ হয়ে গিয়েছে” -যে গান শুনে আত্মহত্যা করেছিলেন শতাধিক মানুষ

এখন শরৎকাল, পাতাগুলো ঝরে পড়ছে পৃথিবী হতে ভালোবাসা সব নিঃশ্বেষ হয়েছে বাতাস কান্নার সকরুণ সুর ভাসিয়ে নিয়ে আসছে আমার হৃদয় আর কোনো নতুন বসন্তের আশা করে না আমার সকল কান্না, দুঃখ-কষ্ট নিস্ফল এখন মানুষ...

নচিকেতা চক্রবর্তী 0

আজ মানবতাবাদী, কণ্ঠশিল্পী ও সংগীতকার নচিকেতা চক্রবর্তীর জন্মদিন

নচিকেতা চক্রবর্তী বাঙালি কণ্ঠশিল্পী ও সংগীতকার। তিনি আধুনিক বাংলা গানের গণমুখী ধারার এক অগ্রগণ্য শিল্পী। এই বেশ ভালো আছি (১৯৯০) অ্যালবাম প্রকাশের পর থেকে নচিকেতা চক্রবর্তী আজ অবদি সমান জনপ্রিয় হয়ে আছেন। নচিকেতা তাঁর...

কাজী নজরুল ইসলাম 0

সংকল্প // কাজী নজরুল ইসলাম

            থাকব না কো বদ্ধ ঘরে, দেখব এবার জগৎটাকে,- কেমন করে ঘুরছে মানুষ যুগান্তরের ঘুর্ণিপাকে। দেশ হতে দেশ দেশান্তরে ছুটছে তারা কেমন করে, কিসের নেশায় কেমন করে মরছে যে...

চরণ ধরিতে 0

চরণ ধরিতে দিয়ো গো আমারে—

চরণ ধরিতে দিয়ো গো আমারে—              নিয়ো না, নিয়ো না সরায়ে।           জীবন মরণ সুখ দুখ দিয়ে             বক্ষে ধরিব জড়ায়ে।           স্খলিত শিথিল কামনার ভার           বহিয়া বহিয়া ফিরি কত আর—            নিজ হাতে তুমি গেঁথে নিয়ো হার,                ফেলো না আমারে জড়ায়ে।           বিকায়ে বিকায়ে দীন আপনারে           পারি না ফিরিতে দুয়ারে দুয়ারে—            তোমার করিয়া নিয়ো গো আমারে                বরণের মালা পরায়ে।। রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): ৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৩২১ রচনাকাল (খৃষ্টাব্দ): ১৯১৪

নীড়ের পাখি 0

“পাখি আমার নীড়ের পাখি অধীর হল কেন জানি”

পাখি আমার নীড়ের পাখি অধীর হল কেন জানি–      আকাশ-কোণে যায় শোনা কি ভোরের আলোর কানাকানি॥      ডাক উঠেছে মেঘে মেঘে    অলস পাখা উঠল জেগে–      লাগল তারে উদাসী ওই নীল গগনের পরশখানি॥ আমার নীড়ের...