লেখকের সাক্ষাৎকার: ”লেখালেখি করি মনের তৃপ্তির জন্য”

হাসনা হেনা 

জন্ম : ১৩ই আগষ্ট ১৯৮০

জন্মস্থান : শ্রীপুর , গাজীপুর, ঢাকা।

স্কুল : মাওনা ১নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় (শ্রীপুর), টেপির বাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় (শ্রীপুর),  শ্রীপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ (শ্রীপুর)।

পেশা : শিক্ষক


  • আপনি কেমন আছেন?
ভালো আছি।
  • বর্তমানে কী লিখছেন?
কবিতা , গল্প , উপন্যাস ।
  •   আপনি লেখার ক্ষেত্রে কি কোনো নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে চলেন?
না, নিয়মের মধ্যে থেকে কোনো কিছু আমার পছন্দ নয় ।
  •   সাধারণত কোন সময় লেখেন?
সারাদিন পারিবারিক ব্যস্ততা থাকে, তাই রাতে লিখতে হয় ।  অনেক সময় ফ্রি থাকলে দুপুরেও লিখি।
  •  আপনার কি মনে হয় যে পরিবারে থেকে লেখা কঠিন?
কিছুটা কঠিন । তবে আমার মনে হয়, ইচ্ছে থাকলে উপায় হয়।
  •   আপনার এ পর্যন্ত কয়টি বই বেরিয়েছে?
একক গ্রন্থ মোট তিনটি, কবিতার বই দু’টি, উপন্যাস একটি । যৌথ কাব্যগ্রন্থ ১১টি।
  •   একক তিনটির নাম বলেন-
চৈতালী বৃষ্টির অপেক্ষা (কাব্য), খেয়ালের জানালা (কাব্য), এক আকাশ ভিন্ন পৃথিবী (উপন্যাস)।
  •   এবারের মেলায় কোনো বই বের হবে?

উপন্যাস থাকবে- “শৃঙ্খলিত পদ্মরাগ”

 

  • আপনি মফস্বলে থাকেন, ওখানে কোনো লেখক সঙ্ঘ আছে?
 না। ঢাকায় ছিলাম। ৬মাস হলো শ্রীপুরে আসছি।
  • আপনার পরিবার সম্পর্কে বলুন-
পরিবারের সদস্য সংখ্যা চারজন। আমার এক ছেলে এক মেয়ে।
  •   লেখালেখিতে পরিবার থেকে উৎসাহ পান?

হ্যাঁ পাই, আমার স্বামী উৎসাহ দেন না, তবে নিষেধও করেন না ।

আমার বাবা অনেক সাপোর্ট করেন । উৎসাহ দেন ।

বলতে পারেন বাবার জন্যই লেখালেখিতে টিকে আছি।
  • আপনার ছেলে-মেয়ে কোন ক্লাসে পড়ে?
ছেলে ভার্সিটিতে পড়ে, মেয়ে ক্লাস টেন
  • তাহলে তো কিছুটা মুক্ত আপনি, নাকি?
তা বলতে পারেন।
  • বাইরে গেলে স্বামী নিষেধ করে না?

সব সময় করেন না, মাঝে মধ্যে করেন ।

আমি সাংগঠনিক কাজে অনেক জায়গায় গিয়েছি।

সামনের ২৩ তারিখে সিলেট যাবো। কবিসভা নামের একটা সংগঠনের সহ সভাপতি পদে আছি।

 

  •  সংগঠনটি পরিচালিত হয় কোথা থেকে?
এটি অনলাইন সংগঠন।
  • সিলেটে আপনার সাথে আর কারা যাচ্ছে?
আমাদের সংগঠনের বাইরেও অনেক লেখক যাবে ঢাকা থেকে।
নারী-পুরুষ নির্বিশেষে। হাসন রাজা জন্ম উৎসব।
  •   লেখালেখি কেন করেন?
প্রথম লেখা শুরু করি কবিতা ।
কবিতা খুব প্রিয়, ছোট বেলা থেকেই প্রচণ্ড এক ভালো লাগা থেকে লেখার শুরু।
এখন লেখালেখি করি মূলত মনের তৃপ্তির জন্য।
  •   সামনে বিশেষ কোনো পরিকল্পনা আছে?
আরো ভালো কিছু লেখার ইচ্ছা আছে ।
মৃত্যুর পরও যেন লেখার মধ্যে বেঁচে থাকি।
  •   আপনার সুস্থ-সুন্দর-সমৃদ্ধ লেখক জীবনের প্রত্যাশায় শেষ করছি। ধন্যবাদ আপনাকে।
ধন্যবাদ  আপনাকেও ।

You may also like...